আজ , মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২

রাউজানের ডাবুয়া খালের বাঁধ কেটে নিচু এলাকার বোরো ধান ও সব্জি ক্ষেত বাচাঁলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার

লেখক : সাহেদুর রহমান মোরশেদ | প্রকাশ: ২০২২-০৩-১৮ ১২:০৪:৩২

 

শফিউল আলম, রাউজানবার্তাঃ

চট্টগ্রাম জেলার রাউজান উপজেলার ১নং হলদিয়া ইউনিয়নের বৃন্দ্বাবনপুর, বৃকবানপুর, জানিপাথর, গলাচিপা, উত্তর আইলী খীল, ২নং ডাবুয়া ইউনিয়নের পুর্ব ডাবুয়া, রোয়াইঙ্গা বিল, রামনাথ পাড়া, কেউকদাইর, চিকদাইর ইউনিয়নের পাঠান পাড়া,চিকদাইর, স›দ্বীপ পাড়া, রাউজান পৌরসভার বাচামিয়ার দোকান, বণিক পাড়া ক্ষেত্রপাল, বণিক পাড়া, সুলতানপুর কাজী পাড়া, বিনাজুরী ইউনিয়নের ইদিলপুর এলাকার উপর দিয়ে প্রবাহিত ডাবুয়া খাল। পাবর্ত্য চট্টগ্রামের পাহাড়ী এলাকা থেকে আসা ডাবুয়া খাল। শুস্ক মৌসুমে উপজেলার ১নং হলদিয়া ইউনিয়নের বৃন্দ্বাবনপুর, বৃকবানপুর, জানিপাথর, গলাচিপা, উত্তর আইলী খীল, ২নং ডাবুয়া ইউনিয়নের পুর্ব ডাবুয়া, রোয়াইঙ্গা বিল, রামনাথ পাড়া, হাসান খীল, কেউকদাইর, চিকদাইর ইউনিয়নের পাঠান পাড়া,চিকদাইর, স›দ্বীপ পাড়া, রাউজান পৌরসভার বাচামিয়ার দোকান, বণিক পাড়া ক্ষেত্রপাল, বণিক পাড়া, সুলতানপুর কাজী পাড়া, বিনাজুরী ইউনিয়নের ইদিলপুর এলাকার কৃষকেরা ডাবুয়া খাল দিয়ে উজান থেকে নেমে আসা পানি সেচের মাধ্যমে ব্যবহার করে সব্জি ক্ষেত ও বোরো ধানের চাষাবাদ করেন।

ডাবুয়া খালের পানি সেচের মাধ্যমে ফসলী জমিতে দিয়ে এলাকার কৃষকেরা মরিচ, আলু, শষা, বরবটি, ঝিঙ্গা, কইদ্যা, ফুল কপি, বরবটি,বেগুন, টমোটো মিষ্টি আলু, সহ বিভিন্ন ধরনের সব্জির ক্ষেতের চাষাবাদ করেন । এছাড়া ও শুস্ক মৌসুমে ডাবুয়া খালের পানি সেচের মাধ্যমে ফসলী জমিতে বাঙ্গী, তরমুজ, খিরা ক্ষেতের চাষাবাদ করেন । সবিাজ ক্ষেত ছাড়া ও কৃষকেরা ডাবুয়া খালের পানি সেচের মাধ্যমে ব্যবহার করে ফসলী জমিতে বোরো ধানের চাষাবাদ করেন। ডাবুয়া খালের পানি সেচের মাধ্যমে ব্যবহার করে এলাকার কৃষকেরা বিপুল পরিমাণ সব্জি, ফল উৎপাদন করেন । উৎপাদিত সব্জি বাজারে সব্জির চাহিদা পুরণ করেন। সব্জি বাজারে বিক্রয় করে যে টাকা আয় হয় ঐ টাকা দিয়ে কৃষকেরা তাদের পরিবার পরিজন নিয়ে স্বাছন্দে জীবন যাপন করেন।

এবারের শুস্ক মৌসুমের শুরু থেকে ডাবুয়া খালে উজান থেকে নেমে আসা পানি সেচের মাধ্যমে ব্যবহার করে কৃষকেরা ফসলী জমিতে সব্জি ক্ষেত ও বোরো ধানের চাষাবাদ করেন। গত ২২ দিন থেকে ডাবুয়া খালে উজান থেকে পানি না আসায় কৃষকেরা সব্জি ক্ষেত ও বোরো ধানের চাষাবাদের জমিতে সেচ দিতে পারছেনা। সেচের পানির অভাবে পুর্ব ডাবুয়া, রোয়াইঙ্গা বিল, কেইকদাইর, রামনাথ পাড়া, হাসান খীল, পাঠান পাড়া, চিকদাইর, স›দ্বীপ পাড়া, ক্ষেত্রপাল, সুলতানপুর কাজী পাড়া, পশ্চিম সুলতান পুর, ইদিলপুর ১ হাজার একরের বেশী সব্জি ক্ষেতের সব্জি ও বোরো ধানের রোপন করা চারা মারা যায়। ডাবুয়া খালের উজানে কয়েকটি বাধ দিয়ে পানি আটক করে উজানের কৃষকেরা সব্জি ক্ষেত ও বোরো ধানের চাষাবাদ করছে। পাহাড়ী এলাকায় গড়ে উঠা কয়েকটি ইটের ভাটায় ডাবুয়া খালে বাধ দিয়ে উজান থেকে আসা পানি আটক করে ডাবুয়া ইটের ভাটায় ইট তৈয়ারীর কাজে পানি ব্যবহার করায় নিচু এলাকায় পানি আসছেনা।

গত ১৭ মার্চ বৃহস্পতিবার সন্দ্ব্যায় রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার জোনায়েদ কবির সোহাগ নিচু এলাকার ফসলী জমিতে বোরো ধান ও সব্জি ক্ষেতের চাষাবাদে সেচ সংকট পরিদর্শন করে উজানে হলদিয়া ইউনিয়নের জানি পাথর এলাকায় ডাবুয়া খালের মাটির বাধ দিয়ে পানি আটক করার দৃশ্য পরিদর্শন করেন। এ সময়ে ডাবুয়া খালের মধ্যে পানি আটক করা বাধ কেটে দিয়ে নিচু এলাকার কৃষকদের বোরো ধান ও সব্জি ক্ষেতের সেচ সংকট নিরসন করেন।