আজ , রোববার, ২৭ নভেম্বর ২০২২

রাউজানে কমছে কৃষি জমিঃ নির্দেশনা অমান্য করে কৃষি জমি থেকে মাটি খনন ও মাটি ভরাট চলছে

লেখক : সাহেদুর রহমান মোরশেদ | প্রকাশ: ২০২২-০৩-০৯ ২৩:৩৬:২০

 

শফিউল আলম, রাউজানবার্তাঃ

সরকার কৃষি জমি রক্ষায় কৃষি জমি থেকে কোন মাটি খনন করা যাবেনা ও কৃষি জমি মাটি ভরাট করে কোন স্থাপনা করা যাবেনা বলে প্রজ্ঞাপন জারী করেন।রাউজানের সাংসদ এবি এম ফজলে করিম চৌধুরী রাউজানে কোন কৃষি জমি থেকে মাটি খনন করা ও কৃষি জমি মাটি ভরাট করে কোন স্থাপনা নির্মান করা যাবেনা বলে উপজেলা আইন শৃংখলা রক্ষা কমিটির সভায় নির্দেশ প্রদান করেন।

সরকার ও সাংসদ ফজলে করিম চৌধুরীর নির্দেশনাকে উপেক্ষা করে প্রতিনিয়ত রাউজানের বিভিন্ন এলাকায় রাতেই শত শত ড্রাম ট্রাক ভর্তি মাটি রাউজানের বিভিন্ন সড়ক দিয়ে নিয়ে গিয়ে রাউজানের বিভিন্ন এলাকায় মাটি ভরাট করা হচ্ছে।

সরজমিনে পরিদর্শন কালে দেখা যায়, রাউজান পৌরসভার ছত্র পাড়া এলাকার ভরাট হয়ে যাওয়া গোস্তাপুকুর থেকে এসকেভেটার দিয়ে মাটি খনন করে প্রতিদিন রাতেই ড্রাম ঠ্রাক ভর্তি করে রাউজানের বিভিন্ন এলাকায় কৃষি জমি ভরাট করছে একটি সিন্ডিকেটের সদস্যরা।

রাউজান পৌরসভার ছত্র পাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পুর্ব পাশে, রাউজান মডেল ইনষ্টিউটের পাশে, ছত্র পাড়া এলাকায়, সাহানগর, রাউজানের ডাবুয়া ইউনিয়নের দক্ষিন হিংগলা পশ্চিম বণিক পাড়ার পশ্চিম পাশে নাগেশ্বর গার্ডেন সড়কের পাশে, রাউজান পৌরসভার দাইয়্যার ঘাটা, নন্দীপাড়া, পশ্চিম রাউজান ডাক্তার খানা, শরীফ পাড়া, বিনাজুৃরী ইউনিয়নের লেলাঙ্গারা, জাম্বইন, রাউজান ইউনিয়নের রশিদর পাড়া কেউটিয়া, পশ্চিম গুজরা ইউনিয়নের কাগতিয়া, মগদাই, বড়ুয়া পাড়া, পুর্ব গুজরা ইউনিয়নের হোয়ারা পাড়া, বঢ়ঠাকুর পাড়া, আধার মানিক, কদলপুর ইউনিয়নের পশ্চিম কদলপুর বড়পয়া পাড়া, জয়নগর, শমশের পাড়া, হলদিয়া ইউনিয়নের হচ্ছার ঘাট, হলদিয়া রাবার বাগান, গহিরা ইউনিয়নের দলই নগর, নোয়াজিশপুর ইউনিয়নের ফতেহ নগর, নদীম পুর, চিকদাইর ইউনিয়নের চিকদাইর এলাকা সমুহে প্রতিদিন রাতেই ব্যাপক হারে কৃষি জমিতে মাঠি ভরাট চলছে।

কৃষি জমি ভরাট কাজে ব্যবহৃত মাটি রাউজানের পাহাড়ী এলাকার কৃষি জমি থেকে এসকেভেটার দিয়ে গভীর ভাবে মাটি খনন করে সন্দ্ব্যা থেকে গভীর রাত পর্যন্ত সময়ে ড্রাম টাক ভর্তি করে এনে ভরাট করা হচ্ছে। এছাড়া ও রাউজানের বিভিন্ন এলাকায় ভরাট হয়ে যাওয়া খাল এসকেভেটার দিয়ে মাটি খনন করে খালের পাড়ে বাধ না দিয়ে খনন করা মাটি ড্রাম ট্রাক ভর্তি করে এনে রাউজানের বিভিন্ন এলাকায় কৃষি জমি ভরাট করছে।

রাউজানের বিভিন্ন এলাকায় ভরাট হওয়া পুকুর ও জলাশয় খনন করে পুকুরের খনন করা মাটি ড্রাম ট্রাক ভর্তি করে এনে রাউজানের বিভিন্ন এলাকায় কৃষি জমি ভরাট করা হচ্ছে। রাউজানের কয়েকটি এলাকায় কৃষি জমি এসকেভেটার দিয়ে গভীর ভাবে মাটি খনন করে মৎস প্রকল্প করার নাম দিয়ে কৃষি জমি থেকে খনন করা মাটি ড্রাম ট্রাকে ভর্তি করে বিভিন্ন এলাকার কৃষি জমি ভরাট করা হচ্ছে।

রাউজানের পশ্চিম ডাবুয়া ভৈরব সওদাগরের বাড়ীর পশ্চিম পাশে সব্জি চাষাবাদের জন্য উপযোগি কৃষি জমি থেকে মাটি খনন করে প্রতিদিন ড্রাম ট্রাক ভর্তি করে মাটি নিয়ে নোয়াজিশপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় কৃষি জমি ভরাট করা হচ্ছে।

রাউজানের ডাবুয়া ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের মেম্বার ওবাইদুল হক চৌধুরী বলেন, ডাবুয়া ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের দক্ষিন হিংগলা চিতা খোলা ব্রীজের পশ্চিম পাশে নেজাম উদ্দিন নামে এক যুবক কৃষি জমি ভরাট করার সংবাদ পেয়ে কৃষি জমি ভরাট কাজে বাধা দেওয়া হয়। কৃষি জমি ভরাট কাজে বাধা দেওয়ার পর একদিন কৃষি জমি ভরাট বন্দ্ব রাখার পর পুনরায় কৃষি জমি ভরাট করছে নেজাম উদ্দিন, কৃষি জমি ভরাট করার বিষয়টি ডাবুয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবদুর রহমান চৌধুরীকে জানিয়েছেন বলে জানান স্থানীয় মেম্বার ওবাইদুল হক চৌধুরী।

রাউজানের ৭নং রাউজান ইউনিয়নের রশিদর পাড়া এলাকায় কয়েকটি স্থানে কৃষি জমি মাটি ভরাট করে ঘরবাড়ী নির্মান কাজ চলছে। এ বিষয়ে স্থানীয় মেম্বার আবদুল নবী বলেন, কৃষি জমি ভরাট করার সংবাদ পেয়ে কৃষি জমি ভরাট করা বন্দ্ব করে দেওয়া হয়েছে।

যে ভাবে রাউজানের বিভিন্ন এলাকায় কৃষি জমি থেকে মাটি খনন ও কৃষি জমি ভরাট করা হচ্ছে রাউজানে কৃষি জমির পরিমাণ হ্রাস পাচ্ছে। অপরদিকে অপরিকল্পিত ভাবে কৃষি জমি ভরাট করে ঘরবাড়ী ব্যবসা প্রতিষ্টান নির্মান করায় বর্ষার মৌসুমে পানি চলাচলের পথ বন্দ্ব হয়ে জলবদ্বতা সৃষ্টি হওয়ার আশংকা করছেন এলাকা বাসী।

এ ব্যাপারে রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার জোনায়েদ কবির সোহাগের কাছে জানতে চাইলে, উপজেলা নির্বাহী অফিসার জেনায়েদ কবির সোহাগ বলেন, কৃষি জমি ভরাট ও কৃষি জমি থেকে মাটি খনন করা যাবেনা। যে সব এলাকায় কৃষি জমি মাটি ভরাট ও কৃষি জমি থেকে মাটি খনন করা হচ্ছে তাদের বিরুদ্বে অভিযান পরিচালনা করা হবে ।