আজ , রোববার, ২৭ নভেম্বর ২০২২

রাউজানে ৫৬ জন ভুমিহীন পরিবারের সদস্যদের মধ্যে ঘরের চাবি ও জমির দলিল হস্তান্তর

লেখক : সাহেদুর রহমান মোরশেদ | প্রকাশ: ২০২২-০৪-২৭ ০১:২৮:২১

শফিউল আলম, রাউজানবার্তাঃ

প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার আশ্রয়ন প্রকল্পের আওতায় ৩য় দফে ৫৬ জন ভুমিহীন পরিবারের সদস্যদের মধ্যে ঘর সহ জমির দলিল প্রদান করা হয়।

২৬ এপ্রিল মঙ্গলবার সকালে ভুমিহীন পরিবারের সদস্যদের মধ্যে প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষে আশ্রয়ন প্রকল্পের ঘর ও জমির দলিল তুলে দেয় রেলপথ মন্ত্রনালয় সর্ম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবি এম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি।

সারাদেশে আশ্রয়ন প্রকল্পের ৩য় দফে নির্মান ঘর ও জমির দলিল ভুমিহীন পরিবারের সদস্যদের মধ্যে হস্তান্তর কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা আশ্রয়ন প্রকল্পের কার্যক্রমের উদ্বোধন করার পর পর রাউজানে ৫৬ টি ঘর ও জমির দলিল ভুমিহীন পরিবারের সদস্যদের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার জোনায়েদ কবির সোহাগের সভাপতিত্বে অনুষ্টিত প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার আশ্রয়ন প্রকল্পের আওতায় ৩য় দফে ৫৬ জন ভুমিহীন পরিবারের সদস্যদের মধ্যে ঘর সহ জমির দলিল হস্তান্তর অনুষ্টানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন রাউজান উপজেলা চেয়ারম্যান এহেসানুল হায়দার বাবুল, রাউজান পৌরসভার মেয়র জমির উদ্দিন পারভেজ, রাউজান উপজেলা সহকারী কমিশনাল ভুমি অতিশ দর্শী চাকমা, রাউজান থানার ওসি আবদুল্লাহ আল হারুন, রাউজান উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ নুর আলম দীন, রাউজান উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ সভাপতি আনোয়ারুল ইসলাম সহ রাউজানের ১৪ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও রাউজান পৌরসভার কাউন্সিলরবৃন্দ্ব।

প্রসঙ্গত, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আশ্রয়ন নির্মান প্রকল্পের আওতায় রাউজানে প্রথশ দপে ২শত ৪০টি ঘর নির্মান করা হয়। ২য় দপে ২শত ৪৮টি ঘর নির্মান করা হয়। ৩য় দপে ৮০টি ঘর নির্মান করা হচ্ছে। ৩য় দপে নির্মানাধীন ৮০টি ঘরের মধ্যে গতকাল মঙ্গলবার ৫৬টি ঘর ও জমির দলিল ভুমিহীন পরিবারের মধ্যে তুলে দেওয়া হয়।৩য় দপে আরো ২৪টি ঘর ও জমির দলিল ভুমিহীন পরিবারের মধ্যে প্রদান করা হবে বলে রাউজান উপজেলা নিবার্হী অফিসার জোনায়েদ কবির সোহাগ জানান।

৩য় দফে আরো ৪০টি ঘর নির্মান করা হবে বলে ও জানান রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার জোনায়েদ কবির সোহাগ। প্রধান মন্ত্রীর আশ্রয়ন প্রকল্পের দেওয় ঘর ছাড়া ও রাউজানের সাংসদ এবি এম ফজলে করিম চৌধুরী জমি আছে ঘর নেই ৫০টি পরিবারের সদস্যদেরকে সেমি পাকাঘর নির্মান করে দেয়। এছাড়া ও রাউজান উপজেলা চেয়ারম্যান এহসানুল হায়দার বাবুল একটি পরিবারকে ঘর নির্মান করে দেয়। চট্টগ্রাম পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি একটি পরিবারকে ঘর নির্মান করে দেয়। পুলিশের পক্ষ থেকে রাউজানের কেউটিয়ায় জমি ক্রয় করে একটি দুস্থঃ পরিবারকে সেমি পাকাঘর নির্মান করে দেওয়া হয়।