আজ , রোববার, ২৭ নভেম্বর ২০২২

রাউজানের কাগতিয়ায় কৃষি ভরাট করে ভবন নির্মান

লেখক : সাহেদুর রহমান মোরশেদ | প্রকাশ: ২০২২-০৩-৩০ ০০:৫৮:৫০

শফিউল আলম, রাউজানবার্তাঃ

রাউজান উপজেলার ৬নং বিনাজুরী ইউনিয়নের কাগতিয়া বাজার থেকে শুরু হওয়া শিল্পী মুক্তিযোদ্ধা প্রবাল চৌধুরী সড়কের পাশে ফসলী জমি মাটি ভরাট করে নির্মান করা হচ্ছে পাকা ভবন।

রাউজান উপজেলার পশ্চিম গুজরা ইউনিয়নের ডোমখালী মাজার গেইট এলাকার বাসিন্দ্বা আবু তাহের ৬নং বিনাজুরী ইউনিয়নের কাগতিয়া বাজার থেকে শুরু হওয়া মু. প্রবাল চৌধুরী সড়কের পাশে কাগতিয়া খালের পাড়ে কৃষি জমি ক্রয় করে নিয়ে কৃষি জমি মাটি ভরাট করে পাকা ভবন নির্মান কাজ করছে।

গত ২৮ মার্চ সোমবার দুপুরে সংবাদ পেয়ে পুর্ব গুজরা তদন্ত ফাড়ির পুলিশ উপস্থিত হয়ে আবু তাহেরকে কৃষি জমিতে পাকা ভবন নির্মান না করার নির্দেশ দিলেও পুলিশ চলে যাওয়ার পর আবু তাহের কৃষি জমিতে পাকা ভবনের নির্মান কাজ চালিয়ে যাচ্ছে।

এব্যাপারে পুর্ব গুজরা পুলিশ তদন্ত ফাড়ির এস আই জাহাঙ্গীর আলমকে ফোন জানতে চাইলে, এস আই জাহাঙ্গীর আলম বলেন, কৃষি জমি ভরাট করে পাকা ভবন নির্মান করার সংবাদ পেয়ে আমরা এলাকায় যায়। আবু তাহেরকে রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসারের অনুমতি না নেওয়া পর্যন্ত কৃষি জামিতে পাকা ভবন নির্মান কাজ বন্দ্ব রাখার জন্য নির্দেশ দিয়েছি।

এ ব্যাপারে আবু তাহেরকে ফোন করে জানতে চাইলে, আবু তাহের বলেন, কৃষি জমিতে পাকা ঘর নির্মান কাজের জন্য আমি বিনাজুরী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান সুকুমার বড়ুয়া ও বর্তমান চেয়ারম্যান রবিন্দ্র লাল চৌধুরী থেকে অনুমতি নেওয়া হয়েছে। পুলিশ আসলে পুলিশকে আমি চেয়াম্যানের কাছ থেকে নেওয়া অনুমতি পত্র দেখিয়েছি।

কৃষি জমি ভরাট করার জন্য রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার ব্যতিত কেউ অনুমতি দেওয়ার এখতেয়ার নেই । এ ব্যাপারে বিনাজুরী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান রবিন্দ্র লাল চৌধুরীকে ফোন করে জানতে চাইলে, চেয়ারম্যান রবিন্দ্র লাল চৌধুরী বলেন, সাবেক চেয়ারম্যান সুকুমার বড়ুয়া আবু তাহেরকে কৃষি জমি ভরাট করে পাকা ভবন নির্মান করার জন্য গত ১ জুন অনুমতি দিয়েছে। আমি কোন অনুমতি দেয়নি। কৃষি জমি ভরাট করার অনুমতি দেওয়ার আমার কোন এখতেয়ার নেই।

অপরদিকে রাউজান পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ডের পশ্চিম সুলতানপুর এলাকায় বিপুল পরিমাণ কৃষি জমি মাটি ভরাট করে ডেইরী ফার্ম নির্মান করছেন পুর্ব গহিরা এলাকার এক ব্যবসায়ী।