রাউজানের নাতোয়ান বাগিচা বাজারে কোরবানীর পশুর হাট জমজমাট

শফিউল আলম, রাউজানবার্তাঃ
রাউজানে কোরবানি পশুর হাট জমে উঠেছে। রাউজান উপজেলার ৭নং রাউজান ইউনিয়নের নাতোয়ান বাগিচায় বিশাল কোরবানীর পশুর হাট বসে। কোরবানীর পশুর হাটে গরু, মহিষ, ছাগল বিক্রয় করতে রাউজানের বিভিন্ন এলাকা থেকে কয়েক হাজার গরু,মহিষ, ছাগল আনে কোরবানীর পশুর ব্যবসায়ীরা ও খামারী, গৃহপালিত গরুর মালিকেরা।

কোরবানীর পশু ক্রয় করতে রাউজানের বিভিন্ন এলাকা থেকে বিপুল পরিমান ক্রেতা আসেন বাজারে। কেরবানীর পশুর হাটে কেনাকাটা জমজমাট হয়ে উঠেছে।

১৪জুন শুক্রবার বিকালে নাতোয়ান বাগিচা কোরবানীর পশুর হাট পরিদর্শন কালে দেখা যায়, পর্যাপ্ত গরু, মহিষ ও ছাগল বাজারে বিক্রি করতে নিয়ে এসেছে ক্রেতারা। হাজার হাজার ক্রেতা বিক্রেতার উপস্থিতিতে বাজার জমজমাট হয়ে উঠে। বাজারে ছোট, মাঝারি ও বড় সাইজের গরু উঠেছে। বারাকা এগ্রো ফার্মের উন্নত জাতে বড় আকৃতির গরু বাজারে স্থান পেয়েছে ক্রেতাদের জন্য। এই বাজারে গরু ছাগলের পাশাপাশি মহিষের জমজমাট বাজার ছিল। মহিষ ক্রেতাদের দেখা মেলে নাতোয়ান বাগিচা কোরবানীর পশুর হাটের উত্তর পাশে হাফেজ বজলুর রহমান সড়কের পাশে খালী ফসলী জমিতে। তুলনা মূলক গরু ছাগলের দাম সহনশীল পর্যায়ে বলে জানান ক্রেতারা। এ বাজারে বারাকা এগ্রো ফার্মে লালন পালন করা বড় জাতের গরু ক্রেতাদের দৃষ্টিতে আকর্ষণ পরিলক্ষিত হয়। দেশীয় জাতের সব চেয়ে বেশি উঠেছে এই বাজারে। মধ্যবৃত্ত ও নিম্ন মধ্যবৃত্ত ক্রেতারা ঝুঁকছে দেশীয় ছোট গরুর প্রতি। তাদের সামর্থ্য অনুযায়ী কোরবানির জন্য গরু ছাগল দরদাম করতে।

গরু ক্রয় করতে আসা নাসির উদ্দিন বলেন, দেশীয় গরু মহিষের জন্য বিখ্যাত নাতোয়ান বাগিচা বাজার। প্রতি বছর এ বাজার থেকে কোরবানির পশু নিয়ে থাকি। এবছরও গরু কিনতে এসেছি। নাতোয়ান বাগিচা কোরবানীর পশুর বাজার মনিটরিং এ থাকা ৭নং রাউজান ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বিএম জসিম উদ্দিন হিরু বলেন, নাতোয়ান বাগিচা কোরবানীর পশুর বাজারটি সম্পর্ণ বিনা হাসিলে গরু ছাগল ও মহিষ বিক্রি করা হয়। রাউজানের সংসদ সদস্য এবিএম ফজলে করিম চৌধুরীর নির্দেশনায় বাজারটি হাসিল মুক্ত করা হয়েছে। তিনি বলেন, বাজারে ক্রেতা বিক্রেতার নিরাপত্তায় পুলিশ ও সেচ্ছাসেবক কাজ করছে।